ম্যাচ শেষে যে প্রশ্নে সাকিব থতমত খেয়ে গেলেন!!

হয়েও হলো না। শেষ বলে দিনেশ কার্তিকের ছক্কায় হার নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয় টাইগারদের। তবে এ ম্যাচে জন্ম দিয়েছে অনেক প্রশ্ন। বিশেষ করে শেষ দিকে বোলার ব্যবহারে। শেষ ওভারে বোলিং করেছেন সৌম্য সরকার। পার্ট টাইম বোলার হিসেবে শুরুটা ভালো করলেও শেষ পর্যন্ত কুলিয়ে উঠতে পারেননি তিনি। শেষ বলটা বেশ ওয়াইড লেন্থেই করেন। তাতে সহজেই মাঠ পার করেন কার্তিক। শেষ ওভারে রুবেলকে না এনে সৌম্যকে কেন আনা হলো এমন প্রশ্নে তাই থতমতই খান অধিনায়ক সাকিব আল হাসান।

শেষ দুই ওভারে ভারতের প্রয়োজন ছিলো ৩৪ রানের। বোলিং করতে আসেন রুবেল। কিন্তু তখন অবিশ্বাস্য ব্যাটিং করে সেই ওভারে ২২ রান তুলে নেন মাত্রই ব্যাটিংয়ে নামা কার্তিক। এরপর শেষ ওভারের ১২ রান আর আটকে রাখতে পারেননি সৌম্য। যদিও শুরুটা দারুণ করেছিলেন তিনি। ৩ বল ৩ দিয়ে শুরু। পঞ্চম বলে উইকেটও পান। কিন্তু শেষ বলে নার্ভ ধরে রাখতে ব্যর্থ। তাই পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে অধিনায়ককে প্রশ্ন রাখা হয় কেন রুবেলকে শেষ ওভারের জন্য না রেখে আগেই আনা হলো? আর সৌম্যই বা শেষে কেন?

প্রশ্নের উত্তরে সাকিব বললেন, ‘আমার ১৮ এবং ১৯তম ওভারে দলের সেরা বোলারদের ব্যবহার করতে চেয়েছিলাম। রুবেলের ওই ওভারে যদি ১৫ রানও যেত তাহলে আমরা নিয়ন্ত্রণ করতে পারতাম। সে লেন্থে তেমন কোন ভুল করেনি কিন্তু এটা ছিল দিনেশ কার্তিক যে এসেই প্রথম বল থেকেই ছক্কা মারা শুরু করেছে।’

প্রশ্ন করা হয়েছিল মিরাজকে কেন মাত্র ১ ওভার করানো হলো। তার উত্তরেও থতমত খেয়েছেন অধিনায়ক, ‘এটা সলে আগেই পরিকল্পনা ছিল। আমাদের দলের সব বোলাররাই বল করতে পারে। তবে আমাদের এখান থেকেই অনেক ইতিবাচক দিক আছে। কোন একদিন আমরাও জয়ী দলের কাতারে থাকবো।’

সাকিব আশা করেছিলেন ১৯তম ওভারে রুবেল ১৫ এর বেশি রান দেবেন না। আর করবেনই না কেন। তার আগের ৩ ওভারে তিনি রান দিয়েছিলেন মাত্র ১৩টি। দলের সেরা পারফরমারই ছিলেন তিনি। কিন্তু ওই ওভারেই যে সব গুলিয়ে দেন কার্তিক। রুবেল তার বোলিং ঠিকই করেছেন, কিন্তু কার্তিকের অতিমানবীয় ইনিংসেই স্বপ্নভঙ্গ হয় টাইগারদের।

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *