স্বপ্নদোষ বেশি ক্ষতিকর নাকি হস্তমৈথুন?

ভেজা স্বপ্ন বা সিক্ত স্বপ্ন (রাত্রিকালীন নির্গমন, সিক্ত স্বপ্ন) যা প্রচলিত বাংলায় স্বপ্নদোষ নামে পরিচিত , তা হল ঘুমের সময় স্বতঃস্ফূর্তভাবে অর্থাৎ কোন সক্রিয় কর্মকান্ড ছাড়াই স্বয়ংক্রিয়ভাবে বীর্য নিঃসরণ ঘটে, যেখানে পুরুষ বা ছেলেদের ক্ষেত্রে বীর্যপাত ঘটে এবং মহিলা বা মেয়েদের ক্ষেত্রে শুধু রাগমোচন বা শুধু যোনি পথ ভিজে যাওয়া বা উভয় ঘটে থাকে।

স্বপ্নদোষ বয়ঃসন্ধি বা উঠতি তারুণ্যে সবচেয়ে বেশী ঘটে থাকে, তবে কোন কোন ক্ষেত্রে বয়ঃসন্ধিকাল পার হবার অনেক পরেও এটি ঘটতে পারে। মহিলাদের ক্ষেত্রে যোনিপথ পিচ্ছিল থাকা সকল ক্ষেত্রে স্বপ্নদোষের বিষয়ে নিশ্চয়তা প্রদান করতে পারে না।

হস্তমৈথুনঃ প্রথমত হস্তমৈথুন মানে যৌন পরিতোষের জন্য পুরুষের লিঙ্গ অথবা নারী তার ভগাঙ্কুর ঘর্ষণ এবং স্তন স্পর্শ করে যৌন আনন্দ উপভোগ করা। এটা একটা স্বাভাবিক উপায় নারী-পুরুষের নিজস্ব অনুভুতি এক্সপ্লোর করার জন্য। হস্তমৈথুন নিজে নিজে অথবা দুটি মানুষের (পারস্পরিক হস্তমৈথুন) মধ্যে হতে পারে।

মূলত যৌন স্বাস্থ্যের জন্য দুইটাই ক্ষতিকর। স্বল্প স্বপ্নদোষ ক্ষতিকর নয়। কিন্তু অধিক স্বপ্নদোষ স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। এতে স্বাস্থ্যহানি হতে পারে। স্বল্প স্বপ্নদোষ হয় বীর্যথলীতে অতিরিক্ত বীর্য জমে যাওয়ার কারণে। এরকমটি হলে চিকিৎসার প্রয়োজন।

ভালো একজন ডাক্তার দ্বারা চিকিৎসা নিলে অবশ্যই এর কুফল থেকে রক্ষা পাওয়া যায়। হস্তমৈথুনের ফলে লিঙ্গের মারাত্মক ক্ষতি হয়। লিঙ্গের যৌনাভুতি কমে যায়। রাসূল সাঃ বলেছেন, যারা হস্তমৈথুন করে তারা সহবাসের মজা পাবে না।

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *